যেকোনো চরিত্রই আসলে চ্যালেঞ্জিং’

অভিনেত্রী তমা মির্জা সর্বশেষ মুগ্ধতা ছড়ান রায়হান রাফীর ‘সুড়ঙ্গ’ সিনেমা দিয়ে। যেখানে তিনি অভিনয় করেছেন আফরান নিশোর সঙ্গে। ছবিটি বাণিজ্য ও সমালোচক বিচারে দারুণ সফলতাও অর্জন করে। তবে সিনেমাটি সফল হলেও পর্দার আড়ালে চলে যান তমা। এরপর আর নতুন কোনো সিনেমার খবরে তাকে দেখতে পাননি দর্শকরা।

তবে চলতি বছরই তিনি ফিরছেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় শিল্পী ও অভিনেতা অঞ্জন দত্তের হাত ধরে। কিছুদিন আগেই গুণী এই শিল্পী নির্মাণ শুরু করেছেন ‘দুই বন্ধু’ শিরোনামের একটি সিরিজ। যেখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করছেন তমা মির্জা। অঞ্জনের ‘দুই বন্ধু’ সিরিজটি মূলত দুজন বন্ধুর মিউজিক্যাল জার্নির গল্প। যেখানে থাকছে অঞ্জন দত্তের ৬টি অপ্রকাশিত গান।

এদিকে তমা মির্জা নাচের মানুষ হলেও গানের আশেপাশেও নন। তাহলে এখানে তার চরিত্রটি কী ও কেমন? এমন কথায় তেমন কিছু বলতে চাননি এই অভিনেত্রী। শুধু বলেন, ‘আমার চরিত্রটি বেশ সাধারণ। খুব বেশি বাড়িয়ে বলার কিছু নেই। এভাবেও বলতে পারি, এমন সাধারণ চরিত্র বহুদিন পর করেছি। অথচ কাজটি করে আমি খুবই হ্যাপি। এক্ষেত্রে একটা অভিজ্ঞতা শেয়ার করি। আগেই বলেছি চরিত্রটি সাধারণ। তবে ইউনিটে ঢুকে নির্মাতা অঞ্জনের সামনে অভিনয়টা করতে গিয়ে মনে হলো, যেকোনো চরিত্রই আসলে চ্যালেঞ্জিং। মানে হালকা ভেবে উড়িয়ে দেওয়া ঠিক নয়। এই কাজটি করে সেটাই আমার শিক্ষা হলো।

তমা বলেন, ‘সিরিজে অঞ্জনদার বেশ কটি নতুন গান আছে। যেগুলো শুনলে বেলাবোসের সেই প্রেমিক দাদাকে খুঁজে পাই, দর্শকরাও পাবেন নিশ্চয়। যদিও সিরিজে আমার চরিত্রের নাম বেলাবোস নয়।’ অঞ্জন দত্তের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তমা আরো বলেন, ‘অঞ্জনদা কাজপাগল একজন মানুষ। শুটিং সেটে ত্রুটিহীন নিখুঁত। ব্যক্তি অঞ্জন আরো অসাধারণ। আমি এ পর্যন্ত অনেক নির্মাতার সঙ্গে কাজ করেছি। তার মধ্যে অঞ্জনদা শ্রেষ্ঠ। একটা মানুষ গান, অভিনয় আর নির্মাণে এত উঁচুতে ওঠার পরও এতটা ডাউন টু আর্থ হতে পারে, ভাবতে পারি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *