খারাপ অভিনয়ের কারন জানালেন তাসনিয়া ফারিণ

দর্শকদের কাছে প্রথমবার ভিন্নরূপে হাজির হলেন নাটকের অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। তার অভিনীত ‘ফাতিমা’ নামে একটি সিনেমা সম্প্রতি দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে। এটি ইতোমধ্যে বেশ কিছু উৎসব থেকেও সম্মাননা এবং প্রশংসা পেয়েছে।

সিনেমাটিসহ সমসাময়িক বিভিন্ন প্রসঙ্গে কথা বলেছেন এ অভিনেত্রী।

সিনেমাটির নাম ভূমিকায় আমি অভিনয় করেছি। ২০১৭ সালে এর একটা অংশ শুট করা হয়েছে। ২০২৩ সালে এসে আরেকটি অংশ শুটিং করেছি। দুইটা সময় মিলে হয়েছে ‘ফাতিমা’। আমি মনে করি সিনেমা যারা বোঝেন, মননশীল যে দর্শক আছে তাদের অবশ্যই এটি দেখে ভালো লাগবে। এটা কোন সরল রেখার গল্প নয়। অডিয়েন্সের ভাবনার গল্প আছে। এই সিনেমায় আমাদের মুক্তিযুদ্ধকে অনেক ভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।

কাজ করতে গিয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিলাম লুক সেট করতে গিয়ে। ২০১৭ সালের ২০২৩ সালে আবার যখন গল্পটা অন্যভাবে সাজানো হয়, তখন বর্তমানের চরিত্রটা আমি আমার মতো করে করেছি। পুরো জিনিসটাই তখন আমার মাথা থেকে বের হয়ে গিয়েছিল। মানে ২০১৭ সালের লুকে আমাকে ২০২৩ সালেও শুটিং করতে হয়েছে। যে কারণে আমার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল এই পাঁচ বছরের ব্যবধানে অভিনয়ে কোনো পরিবর্তন হবে কিনা?
এ কারণে ইচ্ছে করেই হয়তো কিছুটা খারাপ অভিনয় করতে হয়েছে আগের লুকের সঙ্গে মিল রেখে!

ফাতিমা ও ফারিণের মধ্যে অনেক মিল আছে। দুজনই অনেক স্পষ্টবাদী, আবার প্রতিবাদীও। কোনো অন্যায় সহ্য করতে পারি না, সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিবাদ করি। আমি সব সময় সৎ থাকার চেষ্টা, কেউ কোন মিথ্যা অভিযোগ করলে প্রতিবাদ করি। ফাতিমাও ঠিক আমারই মতো। তবে অমিল আছে একটি জায়গায়, ফাতিমার যে সংগ্রামের অভিজ্ঞতা সেটা আমার নেই। তবে আমার নিজস্ব একটা জীবন সংগ্রাম আছে, যা প্রত্যেকটা মেয়েরই থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *